পবিত্র কুরআন » বাংলা » সূরা আল-মুতাফফিফীন

বাংলা

সূরা আল-মুতাফফিফীন - Verses Number 19
إِذَا السَّمَاءُ انفَطَرَتْ ( 1 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 1
যখন আকাশ বিদীর্ণ হবে,
وَإِذَا الْكَوَاكِبُ انتَثَرَتْ ( 2 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 2
যখন নক্ষত্রসমূহ ঝরে পড়বে,
وَإِذَا الْبِحَارُ فُجِّرَتْ ( 3 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 3
যখন সমুদ্রকে উত্তাল করে তোলা হবে,
وَإِذَا الْقُبُورُ بُعْثِرَتْ ( 4 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 4
এবং যখন কবরসমূহ উম্মোচিত হবে,
عَلِمَتْ نَفْسٌ مَّا قَدَّمَتْ وَأَخَّرَتْ ( 5 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 5
তখন প্রত্যেকে জেনে নিবে সে কি অগ্রে প্রেরণ করেছে এবং কি পশ্চাতে ছেড়ে এসেছে।
يَا أَيُّهَا الْإِنسَانُ مَا غَرَّكَ بِرَبِّكَ الْكَرِيمِ ( 6 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 6
হে মানুষ, কিসে তোমাকে তোমার মহামহিম পালনকর্তা সম্পর্কে বিভ্রান্ত করল?
الَّذِي خَلَقَكَ فَسَوَّاكَ فَعَدَلَكَ ( 7 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 7
যিনি তোমাকে সৃষ্টি করেছেন, অতঃপর তোমাকে সুবিন্যস্ত করেছেন এবং সুষম করেছেন।
فِي أَيِّ صُورَةٍ مَّا شَاءَ رَكَّبَكَ ( 8 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 8
যিনি তোমাকে তাঁর ইচ্ছামত আকৃতিতে গঠন করেছেন।
كَلَّا بَلْ تُكَذِّبُونَ بِالدِّينِ ( 9 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 9
কখনও বিভ্রান্ত হয়ো না; বরং তোমরা দান-প্রতিদানকে মিথ্যা মনে কর।
وَإِنَّ عَلَيْكُمْ لَحَافِظِينَ ( 10 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 10
অবশ্যই তোমাদের উপর তত্ত্বাবধায়ক নিযুক্ত আছে।
كِرَامًا كَاتِبِينَ ( 11 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 11
সম্মানিত আমল লেখকবৃন্দ।
يَعْلَمُونَ مَا تَفْعَلُونَ ( 12 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 12
তারা জানে যা তোমরা কর।
إِنَّ الْأَبْرَارَ لَفِي نَعِيمٍ ( 13 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 13
সৎকর্মশীলগণ থাকবে জান্নাতে।
وَإِنَّ الْفُجَّارَ لَفِي جَحِيمٍ ( 14 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 14
এবং দুষ্কর্মীরা থাকবে জাহান্নামে;
يَصْلَوْنَهَا يَوْمَ الدِّينِ ( 15 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 15
তারা বিচার দিবসে তথায় প্রবেশ করবে।
وَمَا هُمْ عَنْهَا بِغَائِبِينَ ( 16 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 16
তারা সেখান থেকে পৃথক হবে না।
وَمَا أَدْرَاكَ مَا يَوْمُ الدِّينِ ( 17 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 17
আপনি জানেন, বিচার দিবস কি?
ثُمَّ مَا أَدْرَاكَ مَا يَوْمُ الدِّينِ ( 18 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 18
অতঃপর আপনি জানেন, বিচার দিবস কি?
يَوْمَ لَا تَمْلِكُ نَفْسٌ لِّنَفْسٍ شَيْئًا ۖ وَالْأَمْرُ يَوْمَئِذٍ لِّلَّهِ ( 19 ) আল-মুতাফফিফীন - Ayaa 19
যেদিন কেউ কারও কোন উপকার করতে পারবে না এবং সেদিন সব কতৃꦣ2468;্ব হবে আল্লাহর।

বই

  • দুআ-মুনাজাতে নবী রাসূলের অসীলা দেয়া : একটি পর্যালোচনাদুআ-মুনাজাতে নবী রাসূলের অসীলা দেয়ার ব্যাপারে শরীয়ত কী বলে এ ব্যাপারে যুক্তিনিষ্ঠ আলোচনায়, কুরআন-সুন্নাহর দলিলসিদ্ধ করে উপস্থাপিত হয়েছে বক্ষ্যমাণ গ্রন্থের নানা তথ্য-উপাত্ত। বইটি গুরুত্বের পড়ার জন্য পাঠক মহোদয়ের প্রতি আবেদন রইল।

    সংকলন : আব্দুল্লাহ শহীদ আব্দুর রহমান

    সম্পাদক : মুহাম্মদ শামসুল হক সিদ্দিক

    প্রকাশনায় : ইসলাম প্রচার ব্যুরো, রাবওয়াহ, রিয়াদ

    Source : http://www.islamhouse.com/p/324548

    Download :দুআ-মুনাজাতে নবী রাসূলের অসীলা দেয়া : একটি পর্যালোচনাদুআ-মুনাজাতে নবী রাসূলের অসীলা দেয়া : একটি পর্যালোচনা

  • অন্তর বিধ্বংসী বিষয়: দুনিয়ার মহব্বতদুনিয়ার মহব্বত একটি মারাত্মক ব্যাধি, যা মানবাত্মাকে ধ্বংস করে দেয় এবং মানবজাতিকে আখিরাত বিমুখ করে। আমাদের অন্তর বিধ্বংসী বিষয় সমূহের সর্ব শেষ আলোচনা দুনিয়ার মহব্বত। এ রেসালাটিতে দুনিয়ার হাকিকত কি, দুনিয়াতে মুমিনদের অবস্থান ও দুনিয়ার সাথে তাদের সম্পর্কের মান-দণ্ড কেমন হওয়া উচিত, তা এ কিতাবে সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরা হবে। তারপর দুনিয়ার মহব্বত ও আসক্তির কারণে মানব জীবনে কি কি প্রভাব পড়তে পারে, কি ক্ষতি হতে পারে, তার চিকিৎসা কি এবং দুনিয়ার প্রতি আসক্তির কারণসমূহ এ রিসালাটিতে আলোচনা করা হবে।

    সংকলন : মুহাম্মাদ সালেহ আল মুনাজ্জিদ

    সম্পাদক : আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া

    অনুবাদক : জাকের উল্লাহ আবুল খায়ের

    প্রকাশনায় : ইসলাম প্রচার ব্যুরো, রাবওয়াহ, রিয়াদ

    Source : http://www.islamhouse.com/p/373476

    Download :অন্তর বিধ্বংসী বিষয়: দুনিয়ার মহব্বতঅন্তর বিধ্বংসী বিষয়: দুনিয়ার মহব্বত

  • মাবরুর হজএটি একটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ, হজব্রত পালনের সঠিক পদ্ধতি কি? কীভাবে এবং কোন কোন পয়েন্টের উপর গুরুত্বারোপ করলে কারও হজ মাবরুর হজে রূপান্তরিত হতে পারে, তারই পথ ও পদ্ধতি বর্ণিত হয়েছে বক্ষ্যমাণ গ্রন্থে।

    সংকলন : শাইখ মুহাম্মদ ইবন জামীল যাইনূ

    অনুবাদক : ইকবাল হোছাইন মাছুম

    প্রকাশনায় : ইসলাম প্রচার ব্যুরো, রাবওয়াহ, রিয়াদ

    Source : http://www.islamhouse.com/p/254971

    Download :মাবরুর হজমাবরুর হজ

  • নাজাফ সম্মেলননাজাফ সম্মেলন: মুহিব্বুদ্দিন আল-খতিব বলেন, এ সম্মেলনটি মুসলিমদের ইতিহাসে শিয়া ও সুন্নীদের জন্য এক বিরাট সম্মেলন হিসেবে বিবেচিত, বরং এটিই প্রথম সম্মেলন, এরপর এর ধরনের সম্মেলন আর সংঘটিত হয় নি; যদিও এর প্রয়োজন ছিল। কারণ সাফাভী রাজবংশ এখনও ভিন্ন নামে ভিন্ন ভিন্ন উদ্দেশ্য এখনো প্রতিষ্ঠিত রয়েছে। সুতরাং পূর্ববর্তী সাফাভীরা যে অন্যায়ের প্রচলন করেছে বর্তমান কালের শিয়ারাও সে একই আকীদায় বিশ্বাসী। তারা তাকীয়্যা, ইসলামের প্রতি ভালবাসার যতই প্রকাশ করুক না কেন, তারা মূলত ইসলাম বিদ্বেষী। বাদশাহ নাদির শাহের সময়ে অনুষ্ঠিত সে সম্মেলনে তারা ঐক্যের স্বার্থে তাদের অনেক অন্যায় কাজ পরিত্যাগ করতে রাজী হয়েছিল, তন্মধ্যে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য ছিল, ১-সাহাবায়ে কিরামকে গালি দেয়া, কাফির বলা, আবু বকর, উমর, উসমানের শ্রেষ্ঠত্ব স্বীকার করা। ২- মুত‘আ বিয়ে বাতিল করা। ইত্যাদি

    সম্পাদক : আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া

    প্রকাশনায় : ইসলাম প্রচার ব্যুরো, রাবওয়াহ, রিয়াদ

    Source : http://www.islamhouse.com/p/353681

    Download :নাজাফ সম্মেলননাজাফ সম্মেলন

  • সৌভাগ্যময় জীবনের পূর্ণাঙ্গ উপায়সৌভাগ্যময় জীবনের পূর্ণাঙ্গ উপায় [আল-ওয়াসায়েলুল মুফীদা লিল-হায়াতিস সা‘য়ীদা] : গ্রন্থটিতে এমন কিছু উপায়-পদ্ধতি আলোচনা করা হয়েছে, যেগুলো গ্রহণ করা হলে অন্তরের সুখ-প্রশান্তি লাভ হবে এবং দুঃখ-চিন্তা দূরীভূত হবে।

    সংকলন : আব্দররহমান বিন নাসের আস-সাদী

    সম্পাদক : আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া - মো: আব্দুল কাদের

    প্রকাশনায় : ইসলাম প্রচার ব্যুরো, রাবওয়াহ, রিয়াদ

    Source : http://www.islamhouse.com/p/344608

    Download :সৌভাগ্যময় জীবনের পূর্ণাঙ্গ উপায়সৌভাগ্যময় জীবনের পূর্ণাঙ্গ উপায়

ভাষা

Choose সূরা

বই

Choose tafseer

Participate